যেভাবে বুঝবেন,প্রেমিকা সত্যিই আপনাকে পেতে চায়

0
5
যেভাবে বুঝবেন,প্রেমিকা সত্যিই আপনাকে পেতে চায়
যেভাবে বুঝবেন,প্রেমিকা সত্যিই আপনাকে পেতে চায়

যেভাবে বুঝবেন,প্রেমিকা সত্যিই আপনাকে পেতে চায়

যেভাবে বুঝবেন,প্রেমিকা সত্যিই আপনাকে পেতে চায়,যারা প্রেম করছেন কিন্তু এখনও ঠিক বুঝতে পারছেন না প্রেমিকার মন-মতি। আপনাকে সে সত্যিই সে চায় না, শুধুই আপনার সাথে টাইমপাস? এসব ঠিকভাবে না বুঝলে বা সম্পর্কটাকে কিছুটা এলোমেলো মনে হলে প্রেমিকার আচরণে এই ১১ চিহ্ণ দেখে বুঝে নিন যে, সত্যিই আপনার প্রেমিকা আপনাকেই পেতে চান কি না।

এনগেজমেন্টের আগে একবার ঝালিয়ে নিন। দেখে নিন আপনার প্রেমিকা কতটা পারফেক্ট আপনার জন্য…

সার্পোটিভ আর কয়েকদিন বাদেই হয়তো তার পরিচয় বদলাবে। প্রেমিকা থেকে স্ত্রী হয়ে উঠবেন। দেখে নিন তিনি আপনাকে কতটা সমর্থন করেন, আপনার পছন্দে কতটা সায় দেন, আপনার ব্যবহার-কথাবার্তা তার পছন্দ কিনা। এছাড়াও একে অপরের থেকে কিছু লুকোচ্ছেন কিনা।

মানুষ হিসেবে খুব ভালো আপনি তার হবু স্বামী বলে সারাদিন আপনাকে নিয়েই তার দিন কাটে না, তার বাইরেও তিনি প্রচুর কাজের সঙ্গে যুক্ত। আপনার বা পরিবারের বাইরেও সকলের কথা ভাবেন। সকলের ভালো লাগবে এরকম কাজ করেন।

মিথ্যের আশ্রয় নেন না নিজেকে বাঁচাতে বা নিজের প্রয়োজনে কখনই মিথ্যে বলেন না। পূর্ব সম্পর্কের কথাও যেমন স্বীকার করেন তেমনই নিজের ভুলও মেনে নেন। আপনি অপছন্দ করেন এরকম কোনও কাজ সে করে না।

পরিবারের যত্ন নেওয়ার মানসিকতা আছে শুধুমাত্র আপনার সঙ্গে সময় কাটাতে বা আপনার সঙ্গেই পার্টি নয়। কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে নাইট আউট নয়। ফ্যামিলি গেটটুগেদারেও তিনি সমান স্বচ্ছন্দ্য। এমনকী আপনার বাবা-মায়ের সঙ্গেও তিনি মানিয়ে থাকতে প্রস্তুত।

পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটার অভ্যেস নেই আজ থেকে পাঁচ বছর আগে আপনি কী করেছেন, কার সঙ্গে ছিলেন বা আপনার লাইফস্টাইলই বা কেমন ছিল সেই বিষয়ে আপনার প্রেমিকা ভাবতে নারাজ। তিনি আপনাকে নিয়েই খুশি থাকতে চান।

আপনাদের মধ্যে কেমিস্ট্রি ভালো ঝগড়া, বিবাদ যাই হোক না কেন দিনের শেষে আপনারা সুখী। এটাই মোদ্দা কথা। আপনাদের মধ্যেকার এই সম্পর্কই যেন বজায় থাকে। তা খেয়াল রাখুন। এছাড়াও নিজেদের মধ্যেকার বোঝাপড়া ঠিক রাখুন। এবং সে ব্যাপারে দুজনের ভূমিকাই গুরুত্বপূর্ণ।

আপনার বন্ধুদেরও গুরুত্ব দেন আপনার প্রেমিকা আপনার সঙ্গে সঙ্গে আপনার বন্ধুদের সঙ্গেও সময় কাটাতে আগ্রহী। তাদেরও যথাযোগ্য সম্মান দেন। কোনও বিরূপ মনোভাব নেই। এটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ।

আপনাকে যথেষ্ঠ স্পেস দেয় প্রেমিকা বলে মোটেই সবসময় ঘাড়ে চেপে বসে না। আপনাকেও প্রয়োজনীয় স্পেস দেন। আপনার স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করেন না… বুঝবেন তিনি সত্যিই আপনাকে ভালোবাসে।

আর পাঁচজনের মতো নন আপনার প্রেমিকা চাকরি করে, খুবই স্মার্ট, আধুনিকা। রিন্তু বাকিদের মতো নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকেন না। অযথা কটূ কথা বলেন না। এদিকে বাড়ির যাবতীয় কাজেও দক্ষ। বুঝে নেবেন আপনি ঠিক জীবনসঙ্গী বেছে নিতে পেরেছেন।

‘আমি আমার মতো’ সাতে পাঁচে থাকতে ভালোবাসেন না। নিজের কাজ এবং নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকেন। তাঁর মতো করেই অবসর যাপন করেন। এবং ছুটির দিন আপনার সঙ্গে থাকতেই পছন্দ করেন। বুঝবেন এ মেয়ে আপনাকে বিয়ে করতে প্রস্তুত।

বেশিদিন রাগ জমিয়ে রাখেন না আপনার সঙ্গে মাঝেমধ্যেই ঝগড়া হয়য়। কিন্তু তার রেশ বেশিদিন থাকে না বা তিনদিন কথা না বললেও চারদিন থেকে ঠিক। আপনি রাগের মাথায় কি বলেছিলেন তা নিয়ে খোঁটা দেন না।

এসব ঠিক তাকলে আর কিছুই ভাববেন না। ভেন্যু বুককরুন। শপিং করুন। বিয়ের তোড়জোর শুরু করুন। আর এই ফাঁকে ভালো করে ঝালিয়ে নিন, প্রেমিকা হানিমুনে কোথায় যেতে চান…পাহাড় নাকি সমুদ্র?

আরও দেখুন>>>দেরিতে বিয়ে, পরিবেশ, স্ট্রেস বাড়াচ্ছে বন্ধ্যাত্ব

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here