ইম্প্রেশন বাড়াতে পারফিউম

0
4
ইম্প্রেশন বাড়াতে পারফিউম

ইম্প্রেশন বাড়াতে পারফিউম

‘ফার্স্ট ইম্প্রেশন ইজ দ্য লাস্ট ইম্প্রেশন’, মানে প্রথম দর্শনই মুখ্য। চাকরির ইন্টারভিউই হোক বা কোন পারিবারিক অনুষ্ঠান,অথবা প্রেমিকার সাথে ডেটিং,   পারফেক্ট ইম্প্রেশন থাকা আজকাল সবার মাস্ট। প্রথম ইম্প্রেশন সবসময় সবক্ষেত্রে ম্যাটার করে৷

কিন্তু ইম্প্রেশন বাড়াবেন কিভাবে? আজকাল সবাই আগে থাকতে চায়, সেটা হোক অফিসের বসকে ইম্প্রেস করার ক্ষেত্রে অথবা অন্যদের কাছে নিজেকে আকর্ষনীয় করে তুলতে।

ইম্প্রেশন বাড়াতে চাই বডি ল্যাঙ্গুয়েজ , কনফিডেন্স, হাইজিন, ইন্টারেস্টিং পারসোনালিটি এবং স্মার্ট আউট লুক।

স্মার্ট হলেই হয় না, নিজেকে স্মার্টলি প্রেসেন্ট করতে হয়। স্মার্ট আউট লুক এর জন্যে যেটা না হলেই নয় তা হল একটি আকর্ষনীয় পারফিউম। আপনি যতই সুন্দর হন না কেন, যদি আপনি দুর্গন্ধ ছড়িয়ে বেরান কেউ সেটা পছন্দ করবে না।

গন্ধ একটি বড় অন্যতম কারন যা আপনাকে সুখি, কনফিডেন্ট, এবং আকর্ষণীয় করে তোলে। এক পরীক্ষায় জানা গেছে, শতকরা ৯০% নারী নিজেদেরকে কনফিডেন্ট মনে করেন বেশি যখন তিনি গায়ে পারফিউম দিয়ে বেরান। এর প্রধান কারন, আমাদের অলফ্যাক্টরি নার্ভ (যা গন্ধের জন্যে প্রয়োজন) মস্তিস্কের লিম্বিক সিস্টেম এর সাথে জড়িত। এই লিম্বিক সিস্টেম আমাদের স্মৃতি ও আবেগ নিয়ন্ত্রন করে থাকে।

FRAGRANCE PLAYS A HUGE ROLE IN HOW YOU FEEL

পারফিউম সাধারণত দুইভাবে আপনাকে কনফিডেন্ট করে তোলে। প্রথমত আপনার মস্তিষ্ক গন্ধটি ভাল না খারাপ, তা ঠিক করে। ভালো গন্ধ আপনার দিনটি প্রাণবন্ত করে তুলবে যেদিকে দুর্গন্ধ আপনার দিনকে নষ্ট করে দিতে যথেষ্ট।  দ্বিতীয়ত, ধরেন আপনি প্রথম ডেইটে গেলেন, সেইদিন যে সুগন্ধটি পেয়েছিলেন,  সেই গন্ধটি আবার পেলে আপনার সেই সুখের সময়টিকে মনে করিয়ে দিবে।

সঠিক সুগন্ধি নির্বাচন:

তো আপনি কিভাবে বলবেন এই পারফিউম আপনার ইম্প্রেশন বাড়িয়ে দিবে? আপনি নিজেই তা বলতে পারবেন। পারফিউম সিলেক্ট করবেন নিজের মস্তিষ্ক দিয়ে, নিজের নাক দিয়ে নয়। যখনেই কোন গন্ধ পেয়ে আপনার মস্তিষ্ক বলে উঠবে, “আমার এইটাই পছন্দ”, সেটাই বেছে নিন।

আপনি যদি বহির্মুখি ব্যক্তি হয়ে থাকেন, ফ্লোরাল অরিয়েন্টাল টাইপ পারফিউম ব্যাবহার করতে পারেন যা ইম্প্রেশন ফুটিয়ে তুলবে। আপনি যদি অন্তর্মূখী  হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে আকুয়া টাইপ ফ্লেভার মানানসই করে তুলবে। এই ধরনের পারফিউম নিজেকে কনফিডেন্ট করে তুলবে কিন্তু অতিরিক্ত লোকজনের মনযোগ নিবে না।

“প্রাণবন্ত লেমন”-নিজেকে প্রাণবন্ত করে রাখার জন্যে সেরা ফ্লেভার “লেমন”। তাছাড়া লেমন জাতীয় সুগন্ধি আপনাকে করে তুলবে চাংগা এবং সতর্ক।

যদি আপনি নিজের কর্মক্ষমতা বাড়াতে চান, ব্যাবহার করুণ পেপারমিন্ট। তাই বিভিন্ন স্পোর্ট পারফিউমে পেপারমিন্ট এর দেখা মেলে।

যদি নিজেকে সফল প্রমান করতে চান তবে ব্যাবহার করুন Gucci Guilty Pour Homme। এতে রয়েছে  জুই লতা সুবাস যা আমাদের মনকে সফলতার কথা মনে করিয়ে দেয়।

ভ্যানিলা- যৌন আবেদনকে উৎসাহী করে: ভ্যানিলা প্রাকৃতিক ভাবেই স্নায়ুতন্ত্রকে শিহরিত করে। এর কারণে আবেদন জেগে উঠে এবং এই ভ্যানিলা কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকেও প্রভাবিত করে। তাই বেশিরভাগ পারফিউমে একে মূল উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ফুলের সুবাস– যৌবন এবং তারুণ্যের বহিঃপ্রকাশ: কিছু কিছু ফুল যেমন পিউনি, লিলি অব দ্য ভ্যালি এবং অরেঞ্জ ব্লজম- এদের সুবাসে রয়েছে বসন্তের মত চঞ্চল যৌবনের আভাস। আমেরিকার Rutgers বিশ্ববিদ্যালয়ের করা এক গবেষণায় জানা যায়, যে সকল পারফিউমে ফলের সুগন্ধ রয়েছে যেমন আপেল বা আম এ সকল সুগন্ধ অপেক্ষাকৃত কম বয়সী তরুণীদের জন্য মানানসয়ী। আর লেবু বা আঙ্গুর এর গন্ধ সুস্থতা এবং সুস্বাস্থ্যের ইঙ্গিত দেয়।

হিন্ট অফ স্পাইস- নমনীয় আবেদনের জন্য: স্পাইসি ফ্লোরাল সুবাসের পারফিউম একজন মেয়ের ওজন কমিয়ে দিতে পারে! সে তার আসল ওজনের চেয়ে (কমপক্ষে ৫ কেজি কম) কম দেখাতে পারেন একজন পুরুষের সামনে, স্মেল অ্যান্ড টেস্ট রিসার্চ ফাউন্ডেশন, শিকাগো এর মতে।

স্পাইসেস বা মসলাদার সুগন্ধ: এটি মানুষকে দ্বিধান্বিত করে দেয়। যেমন আপনি যখন লম্বা বা সমান্তরাল স্ট্রাইপস এর পোশাক পরেন, তা পরলে আপনাকে যেমন পাতলা বা মোটা লাগে, ঠিক সেভাবে।

স্নিগ্ধতা আনবে–গোলাপ: আমেরিকা এবং সুইডেনের স্নায়ুবিজ্ঞানী এবং মনোবিজ্ঞানীদের এক গবেষণায় দেখা গেছে, মেয়েদের সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় লাগে যখন তারা গোলাপের সুগন্ধ ব্যবহার করে। এদের গবেষণার ফলাফলে জানা যায় যে, এই সুগন্ধ সরাসরি চেহারাকে আকর্ষণীয় করে এবং স্নিগ্ধতা দান করে। মনকে করে শান্ত আর সজীব।

সুগন্ধি ব্যবহার করবেন বাইরে যাবার ৫-১০ মিনিট আগে । বাইরে যাবার একদম আগমুহূর্তে ব্যবহার করবেন না। কিছুক্ষণ আগে ব্যবহার করলে সুগন্ধি বসে যেতে সুযোগ পায়।

নিজের জন্য সঠিক সুগন্ধী বেছে নিতে জেনে নিন কিছু জরুরী টিপস…

১)প্রথমেই ঠিক করুন সুগন্ধীটি কখন লাগাবেন, দিনের বেলা না রাতে। দিনের বেলা জন্য হাল্কা কোন গন্ধ বেছে নেওয়াই হবে বুদ্ধি মানের কাজ।স্যান্ধার কোন অনুষ্ঠানের জন্য বাছুন কোন intense গন্ধ বা একটু strong গন্ধ।

২) আগের থেকেই ঠিক করে নিন কত দামের পারফিউম কিনবেন। আজকাল অবশ্য সব শ্যপিং মল-এসব কিছুরই দাম ডিসপ্লে করা থাকে। কাজেই আপনার বাজেট অনুযায়ী জিনিস কিনতে অসুবিধে হবেনা।

৩) অনেক সময়ই হয় আপনার কোন বন্ধু একটি সুগন্ধি লাগিয়ে এলেন যা আপনার খুবই পছন্দ হল এবং নিজের উপর টেস্ট না করেই ওই পারফিউমটা কিনে ফেললেন। এরকম না করাই ভাল, কারণ সবার স্কিন টাইপ আলাদা, তার ফলে সুগন্ধীও বিভিন্ন ভাবে রিঅ্যাক্ট করে। Body temperature, Diet এবং Weather-এও অনেক হের ফের হয়।

৪) সুগন্ধী কিনতে গিয়ে একসঙ্গে অনেক সেন্ট টেস্ট করবেন না।দুটি বা তিনটে টেস্ট করে একটি ব্রেক নিন।এটা না করলে একটু পরেই সব গন্ধ একই রকম মনে হবে।

৫) পারফিউম কিনতে গিয়ে সব সময় গন্ধ টেস্ট করার সময় কাগজে না লাগিয়ে নিজের হাতের wrist-এ লাগান। দু’হাত একদম ঘষবেন না মিনিট দশেক রেখে তারপর গন্ধ শুঁকুন।
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here