শিক্ষক নিয়োগে নতুন বিধান

0
7764
teacher recruitment
শিক্ষক নিয়োগে নতুন বিধান

শিক্ষক নিয়োগে পরিবর্তিত হচ্ছে বিধান। বেসরকারি কলেজে অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগের যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার নতুন বিধান জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ এর এ-সংক্রান্ত বিধানে সংশোধনী পরিপত্র আকারে জারি করছে মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

এতে বলা হয়েছে, বেসরকারি বিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ নিয়োগের জন্য স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পাস হতে হবে। তার মধ্যে একটিতে প্রথম শ্রেণি থাকতে হবে। শিক্ষাজীবনের কোনো স্তরে তৃতীয় শ্রেণি বা বিভাগ গ্রহণযোগ্য হবে না। অভিক্ষতার ক্ষেত্রে এমপিওভুক্ত হিসেবে উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ অথবা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ অথবা এমপিওভুক্ত হিসেবে কোনো কলেজে সহকারী অধ্যাপক পদে ন্যূনতম তিন বছরের অভিজ্ঞতাসহ মোট ১২ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।


আরও পড়ুন >>> মার্চে আসছে আরেকটি শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

অন্যদিকে মহাবিদ্যালয় ও উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ পর্যায়ে অধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা সমান হলেও ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষ অথবা এমপিওভুক্ত হিসেবে ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ বা উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে অথবা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ পদে তিন বছর অভিজ্ঞতাসহ মোট ১৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। তবে উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে অধ্যক্ষ নিয়োগের জন্য শিক্ষকতায় মোট ১২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

আরও পড়ুন >>> শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকরি নিতে এমপিদের কোনো টাকা দিতে হবে না – গণপূর্তমন্ত্রী

পাশাপাশি উপাধ্যক্ষ নিয়োগের জন্য স্নাতকোত্তর ডিগ্রির সঙ্গে এমপিওভুক্ত উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ বা উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে অধ্যক্ষ অথবা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ পদে তিন বছরের অভিজ্ঞতাসহ মোট ১২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে থাকতে হবে।

অবশ্যই পড়ুন >>> ১২৮০ জন শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের উপসচিব কামরুল হাসান স্বাক্ষরিত নির্দেশানায় বলা হয়েছে, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে। বর্তমান সংশোধনী নিয়োগ কার্যক্রম অনুসরণ করে করে এসব পদে নিয়োগ দেয়া যাবে বলেও নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নিয়োগ কার্যক্রমে ক্রটি থাকায় তা সংশোধন করতে গত ছয় মাস থেকে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশনা দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ছয় মাস পর তা সংশোধন করে আবারও এ নিয়োগ কার্যক্রম শুরু করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন >>> ৬৫ হাজার ‘হিসাবরক্ষক’ নিয়োগ সরকারি বিদ্যালয়ে : প্রস্তুতি যেভাবে নিবেন

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here