শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব

0
376
শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব

শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের বেশিরভাগ দাবি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হলেও কঠোর আন্দোলনমুখী অবস্থানে রয়েছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষকরা।

সূত্র মতে, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং কলেজ সরকারিকরণ, ইবতেদায়ি শিক্ষকদের বেতন কাঠামো তৈরি করতে নীতিমালা প্রণয়ন এবং বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নতুন করে এমপিওভুক্তসহ শিক্ষক-কর্মচারীদের বেশিরভাগ দাবি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

নন-এমপিও শিক্ষকদের আন্দোলনের ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বাজেটের আগেই এমপিওভুক্ত করা হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা একটি চলমান প্রক্রিয়া। তবে একসঙ্গে কত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা যাবে তা বলতে পারছি না। পর্যায়ক্রমে শিক্ষকদের দাবি আইনগতভাবে বাস্তবায়ন করা হবে।’

২০১৮ সালে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে নতুন করে এমপিওভুক্ত করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আবেদন জমা পড়েছিলো। এই আবেদনের পর ওই সময়ের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব জানিয়েছিলেন, এক হাজারের মতো নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা) এমপিওভুক্ত করা সম্ভব হবে।

যদিও নতুন এমপিও পাওয়ার জন্য ছয় হাজারেরও বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবেদন করে। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ অনুমোদন হিসেবে এমপিও হতে পারে এক থেকে দেড় হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তবে এখন পর্যন্ত কোনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকেই এমপিওভুক্তির আওতায় নেয়া হয়নি।

এদিকে আবেদনের পর নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশন একযোগে সব প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার দাবি জানিয়ে আসছে। বর্তমানে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। তাদের সবার মুখে শুধু একটাই কথা- প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ না হওয়া পর্যন্ত প্রেসক্লাবের সামনেই অবস্থান করবেন তারা। শিক্ষকদের আশা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করতে পারলেই তাদের দাবি আদায় হবে।

শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব
শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব

এ বিষয়ে শুক্রবার দুপুরের দিকে কথা হয় নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায়ের সঙ্গে।

তিনি বলেন, ‘গত বছরের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব আন্দোলনরত নন-এমপিও প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের সঙ্গে দেখা করে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী দাবি-দাওয়া মেনে নিয়েছেন। কিন্তু সে দাবি ১৫ মাসেও পূরণ হয়নি। মাঝে শিক্ষামন্ত্রণালয় অনলাইনে এমপিওভুক্তির আবেদন গ্রহণ করলেও অজানা কারণে তা বন্ধ রয়েছে। আমরা বাধ্য হয়ে ফের রাস্তায় দাঁড়িয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত বুধবার (২০ মার্চ) থেকে এমপিওর দাবিতে প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছি। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) বেলা ১১টায় এমপিওভুক্তির দাবিতে পুনরায় রাজপথে নেমেছি। নির্ধারিত কর্মসূচি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে পদযাত্রা শুরু করলে পুলিশ আটকে দেয়। তাই আমরা প্রেসক্লাব সংলগ্ন কদম ফোয়ারায় অবস্থান করছি। এখানেই রাত্রী যাপন করেছে কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী।’

ড. বিনয় ভূষণ রায় বলেন, ‘দাবি পূরণ না হলে লাগাতার আন্দোলন-কর্মসূচি চলবে। আমরা রাস্তায় অবস্থান নিয়েছি, রাস্তাতেই থাকবো। আমাদের দাবি কি অন্যায্য? যদি তাই মনে হয় তাহলে বলে দিন। আমরা আর ক্লাশে ফিরবো না।’

‘২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী দাবি মেনে নিয়েছেন। অনশন ভেঙে আমাদের ঘরে ফিরে যেতে বলেছেন। এরপর জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা চৌধুরীসহ কয়েকজন এসে আমাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ দেয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন তারা। কিন্তু এক বছর পার হলেও দাবি বাস্তবায়ন করা হয়নি। প্রতিশ্রুতি দেয়া হয় কিন্তু তা পালন করা হয় না। এ কারণেই আমরা আবারও সমবেত হয়েছি।’

মোমেনা খাতুন নামে এক শিক্ষক বলেন, ‘চাকরি আছে কিন্তু বেতন নেই এমন দেশ পৃথিবীতে নেই। কিন্তু বাংলাদেশে এমনই অবস্থা বিরাজমান। আমরা বছরের পর বছর চাকরি করছি, বেতন ছাড়া শ্রম দিচ্ছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here