স্বার্থ রক্ষা করতেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি : ন্যাপ

0
11
স্বার্থ রক্ষা করতেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি
স্বার্থ রক্ষা করতেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি

লুটেরা গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করতেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি : ন্যাপ

তিতাসের সীমাহীন দুর্নীতি, চুরি ও কর্মকর্তাদের লুটপাট বন্ধ না করে দফায় দফায় গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূইয়া বলেছেন, দেশি-বিদেশি লুটেরা গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করতেই সরকার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করছে।

সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় এসব কথা বলেন। তারা বলেন, বর্তমান সরকারের আগের মেয়াদেও কয়েকবার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করা হয়েছিল। এর সঠিক কারণ ব্যাখ্যা না করে সরকারের গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির জন্য তথাকথিত গণশুনানি জনগণের সঙ্গে পরিহাসের মতো ধৃষ্টতা। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হলো, সরকার জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে না। তারা প্রকৃত অর্থে লুটেরা গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করতেই বার বার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করছে।

আরও পড়ুন >>> আবার ও ২৫% ভাড়া বাড়ছে রেলপথে

নেতৃদ্বয় দেশের সকল রাজনৈতিক দল, শ্রেণি-পেশার মানুষকে সরকারের গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির মতো গণবিরোধী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে প্রয়োজনে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রকৃত অর্থে দেশের জনগণের অর্থে লালিত জ্বালানি মন্ত্রণালয় জনগণের স্বার্থ রক্ষা করে না। তারা বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষায় ব্যস্ত। এমপি-মন্ত্রী সাহেবদের ভোটের প্রয়োজন হয় না। তাই জনগণের স্বার্থ রক্ষার দায়ও তাদের নেই। এ কারণে লুটেরা গোষ্ঠীর খুশির জন্য দেশের মানুষের স্বার্থ পরিপন্থী ভুল সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকার।

আরও পড়ুন >>> হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে পাবনার ৮ উপজেলায়

অবিলম্বে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের আহ্বান জানিয়ে তারা বলেন, গ্যাসের বর্ধিত মূল্য জনগণ মেনে নেবে না, নিতে পারে না। উচ্চমূল্যের এই বাজারে সরকারের এই সিদ্ধান্ত জনগণের উপর নতুন করে দুর্দশা বাড়িয়ে দেবে। সরকার স্বেচ্ছাচারী হয়ে, গণরায়কে উপেক্ষা করে মূল্যবৃদ্ধির যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে নাকাল জনগণ কোনোভাবেই তা মেনে নিতে পারে না।

সুত্রঃ জাগো নিউজ

আরও পড়ুন 

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে পাবনার ৮ উপজেলায়

পাবনা জেলার ৮টি উপজেলায় আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। এ উপজেলাগুলোতে নির্বাচন হতে পারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার কারণে ৮টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সুজানগর উপজেলার চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় এখানে শুধু অন্য দুটি পদে নির্বাচন হবে।

বিস্তারিত দেখুন – হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে পাবনার

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here