যে কারনে আবারো রিয়াল মাদ্রিদে ফিরলেন জিদান

0
14
রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জেনেদিন জিদান
রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জেনেদিন জিদান

যে কারনে আ রিয়াল মাদ্রিদে ফিরলেন জিদান

মাত্র ১০ মাসের ব্যবধানে আবারো রিয়াল মাদ্রিদে ফিরেছেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী কোচ জিনেদিন জিদান। আর দায়িত্ব পাওয়ার পাঁচ মাসের মাথায় বরখাস্ত হয়েছেন সান্তিয়াগো সোলারি, যিনি একজন সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবলার।

জিদান যোগ দেয়ার পর রিয়াল মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ বলেন, ‘বিশ্বের সেরা ম্যানেজার আবার ক্লাবে যোগ দিয়েছেন। আমাদের পথ আবারো এক হয়েছে।’

ঠিক কেন কোচ বদলের সিদ্ধান্ত?

এই মৌসুমের পয়েন্ট তালিকায় রিয়াল মাদ্রিদের অবস্থান তিন নম্বরে, এখনো টেবিলের শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে ১২ পয়েন্টে পিছিয়ে আছে দলটি। রোববার রেয়াল ভায়াদোলিদের বিপক্ষে ৪-১ গোলের জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু এর আগে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-৩ ব্যবধানে ডাচ ক্লাব আয়াক্সের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেয় রিয়াল। তখনই পেরেজ সিদ্ধান্ত নেন কোচ বদলের।

এর আগে এল ক্লাসিকো অর্থাৎ রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার মধ্যকার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দ্বৈরথে টানা দুইবার হেরে যায় বার্সেলোনা। লা লিগায় ১-০ ব্যবধানে এবং কোপা দেল রে’তে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-১ ব্যবধানে হারে রিয়াল মাদ্রিদ।

কী পরিস্থিতিতে জিদান ক্লাব ছেড়েছিলেন?

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে লিভারপুলকে হারানোর পরপরই জিদান পদ থেকে সরে দাঁড়ান। এরপর রিয়াল মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ হুলেন লোপেতেগির নাম ঘোষণা করে জিদানের পরবর্তী কোচ হিসেবে। তাৎক্ষনিকভাবে স্পেন তাকে বিশ্বকাপের দলের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়। কিন্তু এর ঠিক সাড়ে চার মাসের মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদও তাকে বরখাস্ত করে।

এরপর রিজার্ভ দলের কোচ সোলারির ওপর ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব আসে। ২০২১ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পান সোলারি গত বছরের ১৩ই নভেম্বর।

সোলারির বিদায়ের পর ক্লাব তাকে ধন্যবাদ জানায়। ক্লাবে এসে জিদান বলেন, ‘এই ক্লাবটি যেখানে থাকার কথা সেখানে পৌঁছানো আমার দায়িত্ব। আমি মাদ্রিদেই ছিলাম, কিছু জিরিয়ে নিয়েছি, এবং এখন আমি সতেজ, আমি এই বিখ্যাত ক্লাবের দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত এখন।’

রিয়াল মাদ্রিদের পরিস্থিতি কী?

মাত্র এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদে ফিরেছেন জিদান। কিন্তু এই সময়ের মধ্যেই রিয়াল মাদ্রিদের যে অবনতি হয়েছে সেটা ঠিক করা জিদানের প্রথম চ্যালেঞ্জ। গেল সপ্তাহেই বেশ খারাপ কিছু ফলাফল করেছে ক্লাবটি।

এখনো পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সুযোগ্য কোনো বিকল্প খুঁজে পায়নি ক্লাবটি। গত গ্রীষ্মে মাদ্রিদ ছাড়েন রোনালদো। করিম বেনজেমা ক্লাবের একমাত্র ফুটবলার যিনি এই মৌসুমে লা লিগায় ১০টির বেশি গোল করেছেন। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে বেনজেমার গোলসংখ্যা ২২টি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে গ্যারেথ বেল করেছেন ১৩টি এবং ১১টি গোল করেছেন রামোস।

কিন্তু এরা রিয়াল মাদ্রিদে দীর্ঘসময় থাকবেন সেটা বলা যাচ্ছে না। অধিনায়ক রামোস সম্পর্কে শোনা যাচ্ছে ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের সাথে সম্পর্ক খুব একটা ভালো যাচ্ছে না। আর ওয়েলসের গ্যারেথ বেলের এটাই সম্ভাব্য শেষ মৌসুম রিয়াল মাদ্রিদে, ক্লাবের ভক্তদের সাথে তার সম্পর্ক খুব খারাপ হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here